প্রেমিকাকে বিষপানে হত্যা চেষ্টা করে প্রেমিক

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বড় কুমিরা রয়েলগেট এলাকায় নিশান (২১) নামে এক প্রেমিকের বাড়ির পাশের বিলে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে ছিল কিশোরী প্রেমিকা।

খবর পেয়ে মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টার সময় কিশোরীর বাড়ির লোকজন ঘটনাস্থল থেকে মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেন।

চিকিৎসকরা জানিয়েছে তাকে খাবারের সাথে বিষাক্ত কিছু খাওয়ানো হয়েছে।বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক।

কিশোরী সীতাকুণ্ড উপজেলার বড় কুমিরা এলাকার বাসিন্দা।সে স্থানীয় অরবিট ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রিসিপশনিস্ট হিসেবে কাজ করতেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

প্রেমিকা কিশোরীর পরিবারের লোকজন জানিয়েছে, কর্মস্থল যাওয়া আসার সময় রয়েলগেট এলাকার বাসিন্দা মো. জসিমের ছেলে নিশান (২১) এর সাথে কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়। চার বছর ধরে চলে এ সম্পর্ক।মঙ্গলবার দুপুরে প্রেমিক নিশান ওই কিশোরী প্রেমিকাকে তার বাড়িতে ডেকে পাঠালে সেখানে ছুটে যায়। বিকেলের দিকে খবর আসে ওই প্রেমিকের বাড়ির পাশের বিলে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে আছে প্রেমিকা।
খবর পেয়ে কিশোরীর ভাই জিশানসহ কয়েকজন সেখানে ছুটে গিয়ে মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি দেন। তাদের দাবী কিশোরীকে বিষপান করানো হয়েছে।

হাসপাতালে জ্ঞান ফেরার পর কিশোরীও চিকিৎসককে জানিয়েছে তাকে খাবারের সাথে কিছু একটা খাওয়ানো হয়েছে। এরপর সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে।

চমেক পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরীকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে আসে স্বজনরা।

কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানিয়েছে তাকে বিষপান করানো হয়েছে। তার মুখে ফেনা এবং গায়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার অবস্থা এখনো আশংকাজনক। তাকে নিবীড় পর্যবেক্ষণে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে এটি আত্মহত্যা নাকি হত্যা চেষ্টা তা তদন্ত করে দেখা হবে বললেন পাঁচলাইশ থানার ওসি (তদন্ত) সাদেকুর রহমান।

আজকের বাংলাদেশ২৪/ মো: ইলিয়াছ হোসাইন মুন্না/ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি